ad
ad

Breaking News

NASA

NASA : প্রচন্ড গতিতে পৃথিবীর দিকে ধেয়ে আসছে বিশাল গ্রহাণু, সতর্কবার্তা নাসার

মানুষের মতো স্তন্যপায়ী প্রাণীদের তাদের উপস্থিতি নিয়ে পৃথিবীতে আধিপত্য বিস্তারও করতে পারে।

Huge asteroid is heading towards Earth at high speed, NASA warns

চিত্র : সংগৃহীত

Bangla Jago Desk : মহাকাশ নিয়ে মানুষের আগ্রহের অন্ত নেই। আর তা যদি হয় NASA সম্পর্কিত তাহলে তো কোনো কথাই হবে না। বর্তমানে বিজ্ঞান এতটাই উন্নত হয়েছে যে, বিজ্ঞানীরা বিভিন্ন অবিশ্বাস্য ঘটনাকে বাস্তবায়িত করছে একেবারে তুড়ি মেরে। সম্প্রতি প্রকাশ্যে এলো এক চাঞ্চল্যকর তথ্য। বিশাল গতিতে ভ্রমণকারী একটি গ্রহাণু ধেয়ে আসছে পৃথিবীর দিকে। মার্কিন মহাকাশ সংস্থা নাসা জানিয়েছে, গ্রহাণুটি আজ পৃথিবীর সবচেয়ে কাছাকাছি পৌছবে মাত্র ৩,২৭০,০০০ মাইল।

[ আরও পড়ুন : Mamata Banerjee: অবৈধ দখলদারি রুখতে রাত থেকেই শুরু অভিযান

এবারে মনে প্রশ্ন আসতেই পারে গ্রহানু কী?

গ্রহাণু হলো একটি মহাকাশ শিলা, যা ধাতু, ধূলিকণা এবং অন্যান্য পদার্থ দ্বারা গঠিত। এটি পৃথিবী, মঙ্গল এবং শুক্রের ন্যয় গ্রহের মত সূর্যকে প্রদক্ষিণ করে। তবে তাদেরকে গ্রহের তালিকায় লিপিবদ্ধ করা হয় না। প্রকৃতপক্ষে বলতে গেলে, বেশিরভাগ গ্রহাণু বৃহস্পতি এবং মঙ্গল গ্রহের কক্ষপথের মধ্যবর্তী গ্রহাণু বেল্ট নামে একটি অঞ্চলে পাওয়া যায়।

এবারে নিশ্চয়ই ভাবছেন গ্রহাণু বেল্টে কয়টি গ্রহানু থাকে?

১ মিলিয়ন থেকে ১.৯ মিলিয়নের মধ্যে।

[ আরও পড়ুন : Rupam Islam: বাঙালি ভাবাবেগে আঘাত! রবীন্দ্রসংগীত বিকৃত করে নেটিজেনদের রোষানলে রূপম

গ্রহাণু ২০২৪ KJ

আজ পৃথিবীর খুব কাছে আসতে চলেছে এই গ্রহানুটি। এই নিয়ে ইতিমধ্যেই নাসা সতর্ক করেছে। গ্রহাণুটি আয়তনে প্রায় ৭৭ ফুট। এটি গ্রহগুলির অ্যাপোলো গ্রুপে শ্রেণীবদ্ধ করা হয়েছে এবং এটিকে পৃথিবীর কাছাকাছি বস্তু হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে। এটি যদি পৃথিবীর ৪৫ মিলিয়ন কিলোমিটারের কাছাকাছি কোথাও আসে তাহলে ইহাকে NEO হিসেবে শ্রেণীবদ্ধ করা হবে। সূত্রের খবর, গ্রহাণুটি প্রতি ঘন্টায় প্রায় ১০০৯৪ কিলোমিটার গতিতে ভ্রমণ করছে।

এই গ্রহাণুটি কি পৃথিবীতে আছড়ে পড়বে?

পৃথিবীতে এই গ্রহাণুটি আছড়ে পড়ে বিধ্বস্ত হওয়ার বিষয়ে উদ্বিগ্ন করার কোন কারণ আছে কী? যদিও এই গ্রহাণু বা অন্য যেকোনো মহাজাগতিক বস্তু যা পৃথিবীর খুব কাছে আসে তা অনেকসময় উদ্বেগের কারণ হয়। তবে নাসার অনুমান, এটি তার গতিপথ পরিবর্তন করবে এবং সরাসরি পৃথিবীর দিকেই এগিয়ে আসবে। এটি পূর্বে উল্লেখিত দূরত্বে অতিক্রম করবে।
জেনে রাখা ভালো, যখনই এই গ্রহাণু গুলি কোনো বড় বস্তুগুলি অতিক্রম করে, তখন তাদের মধ্যে মাধ্যাকর্ষণ ক্ষেত্র পথ পরিবর্তন করাতে পারে। উদাহরণস্বরূপ বলাই যেতে পারে বৃহস্পতি গ্রহ একাধিকবার তা প্রমাণ করেছে। একটি তত্ত্ব অনুসারে, বৃহস্পতি গ্রহাণুটি পৃথিবীর দিকে মাধ্যাকর্ষণের জন্য দায়ী ছিল যা সমস্ত ডাইনোসরকে হত্যা করেছিল। শুধু তাই নয়, মানুষের মতো স্তন্যপায়ী প্রাণীদের তাদের উপস্থিতি নিয়ে পৃথিবীতে আধিপত্য বিস্তারও করতে পারে।