ad
ad

Breaking News

Kuwait Fire

Breaking News: কুয়েতের এক আবাসনে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে মৃত ৪০, যার বেশিরভাগ ভারতীয়

ঘটনাটি ঘটেছে কুয়েতের মাঙ্গাফ জেলার শহর এলাকার একটি বহুতলে

40 Indians died in a terrible fire in a residence in Kuwait

ছবি : সংগৃহীত

Bangla Jago Desk :কুয়েতের এক বহুতলে বিধ্বংসী অগ্নিকাণ্ডে মৃত্যু বহু মানুষের। মৃত প্রায় অর্ধশতাধিক মানুষের মধ্যে বেসিরভাগ ভারতীয়। মারাত্মক দগ্ধ অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি আছেন অনেকে। যাদের অনেকের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা যাচ্ছে। মৃত্যু ভারতীয়দের মধ্যে বেশিরভাগ দক্ষিণ ভারতের। তাঁরা সেখানে কাজের জন্য ছিলেন।

বুধবার ভোরে কুয়েতের দক্ষিণ আহমদি প্রদেশের মাঙ্গাফ এলাকায় একটি ৬তলা ভবনের রান্নাঘরে আগুন লাগে। ওই ভবনটিতে প্রায় ১৬০ জন মানুষ বাস করতেন। যারা একই কোম্পানির কর্মচারী। সেখানে বসবাসকারী কর্মচারীদের বেশিরভাগ ছিলেন ভারতীয়। ওই ভবনে এদিন আগুন লাগে। কুয়েতে ভারতীয় দূতাবাস একটি জরুরি হেল্পলাইন নম্বর চালু করেছে। নম্বরটি হল +965-65505246, এই নম্বরে সমস্ত খবর পাওয়া যাবে। ভারতীয় দূতাবাস সব ধরনের সহযোগিতা করবে বলে জানিয়েছে।

 

কুয়েতের অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্করের এক্স হ্যান্ডেলে পোস্ট করে জানিয়েছেন, ‘অগ্নিকাণ্ডের কথা শুনে খুব খারাপ লাগছে। জানা গেছে যে ৪০ জনেরও বেশি লোক মারা গেছে এবং ৫০ জনেরও বেশি লোক হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে। আমাদের রাষ্ট্রদূত ওখানে গিয়েছেন। আমরা আরও তথ্যের জন্য অপেক্ষা করছি। যারা দুঃখজনকভাবে তাদের জীবন হারিয়েছে তাদের পরিবারের প্রতি আমার গভীর সমবেদনা। আহতদের দ্রুত ও সম্পূর্ণ সুস্থতা কামনা করছি। আমাদের দূতাবাস এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট সকলকে সার্বিক সহযোগিতা প্রদান করবে।’

এই অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় কুয়েত প্রশাসন কর্মা পদক্ষেপ করেছে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী শেখ ফাহাদ আল-ইউসেফ আল-সাবাহ পুলিশকে মাঙ্গাফ বিল্ডিংয়ের মালিককে গ্রেফতারির নির্দেশ দিয়েছেন। এছাড়া ভবনের প্রহরী ও শ্রমিকদের সরবারহ কোম্পানির মালিককে গ্রেফতারির নির্দেশও দেওয়া হয়েছে। অগ্নিকাণ্ডের ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে এক বিবৃতিতে ওই মন্ত্রী বলেন, ‘যা ঘটেছে তা কোম্পানি ও ভবন মালিকদের লোভের ফল।’ ভবিষ্যতে এ ধরনের ঘটনা এড়াতে সব ধরনের নিরাপত্তার প্রয়োজনীয়তা পালনের নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

[ আরও পড়ুন – US : ৩০০ টাকার গয়না ছ’কোটিতে কিনেছেন বিদেশিনী, অভিযোগ দায়ের ব্যবসায়ীর নামে

বিভিন্ন দেশ থেকে কুয়েতে কাজ করতে আসা নির্মাণ শ্রমিকরা ওই আবাসনে থাকতেন। একসঙ্গে প্রায় ১৬০ জন নির্মাণ শ্রমিক সেখানে থাকতেন। তাঁদের মধ্যে তামিলনাড়ু ও কেরল থেকে যাওয়া বহু শ্রমিক ছিলেন। আগুন লাগার খবর পাওয়া মাত্র উদ্ধার কাজ শুরু হয়। বহু শ্রমিককে উদ্ধার করা সম্ভব হলেও ৫০ জনের বেশি মানুষের  মৃত্যু হয়েছে। তাঁদের মধ্যে বেশিরভাগ ভারতীয় বলে জানা যাচ্ছে।