ad
ad

Breaking News

Hooghly

গরম থেকে রেহাই চাই! বর্ষার আহ্বানে পান্তা উৎসব চুঁচুড়ায়

প্রচণ্ড গরমে পান্তা খেলে পেট ঠান্ডা থাকে। শরীর ঠান্ডা রাখতে বৃষ্টির প্রয়োজন। বৃষ্টি নামানোর জন্য পান্তার আয়োজন।

The Panta Festival rang with the call of the monsoons

চিত্র : সংগৃহীত

Bangla Jago Desk : হুগলি, রাকেশ চক্রবর্তী : জৈষ্ঠের ভ্যাপসা গরমে নাজেহাল অবস্থা। গরম থেকে রেহাই পেতে বর্ষার আগমন প্রয়োজন। বর্ষার আহ্বানে পান্তা উৎসব হয় চুঁচুড়ায়। এক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন এই গ্রীষ্মে একটু স্বস্তি দিতে তেরো বছর ধরে করে আসছে পান্তা উৎসব।

[ আরও পড়ুন : অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল ব্যবহারকারীদের জন্য নয়া ফিচার গুগলের

হুগলির চুঁচুড়ায় শনিবার সেই উৎসবে স্থানীয়রা ছাড়াও সামিল হতে দেখা যায় কলকাতা, নদীয়া,আসানসোলের কয়েকজনকে। সংগঠনের ভবনে কয়েকশ লোকের পেট ভরে। মেনুতে ছিল পান্তা ভাত, গন্ধরাজ লেবু, আলু ভাতে, কাঁচা লঙ্কা, ভাজা শুকনো লঙ্কা, কাঁচা পিঁয়াজ, ডালের বড়া, পিঁয়াজি, মাছের ডিমের বড়া, পাঁচমিশালী সবজি, মৌরলা মাছের চচ্চড়ি, মাছের মাথা দিয়ে ছ্যাঁচড়া, কাতলা কালিয়া, চাটনি, পাঁপড়। শেষ পাতে ছিল হিমসাগর আম ও কাঁঠাল। ১৬ রকম পদ পাত পেড়ে বসে খান শহরবাসী।

[ আরও পড়ুন : Mamata Banarjee :কুয়েতে বিধ্বংসী অগ্নিকাণ্ডে ৪০জনের বেশি মানুষের মৃত্যু, শোক প্রকাশ মুখ্যমন্ত্রীর

স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা আরোগ্যর কর্ণধার ইন্দ্রজিৎ দত্ত বলেন, “বর্ষার আহ্বানে বারো বছর আগে শুরু হয়েছিল পান্তা উৎসব। তারপর থেকে প্রতিবছর অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে এই পান্তা উৎসব। আবার জাঁকজমক করে এবছর অনুষ্ঠিত হল। ছ’শো জনের পাত পড়ে পান্তা উৎসবে। আরোগ্যর ফেসবুক পেজ দেখে, দমদম, বেহালা থেকেও লোকজন এসেছেন। পান্তা উৎসবের পর বৃষ্টি নামবে কি না, সেটা আবহাওয়া বলবে। তবে বিগত দিনের অভিজ্ঞতা থেকে আরোগ্যর সদস্যরা জানান, প্রচণ্ড গরমে পান্তা খেলে পেট ঠান্ডা থাকে। শরীর ঠান্ডা রাখতে বৃষ্টির প্রয়োজন। বৃষ্টি নামানোর জন্য পান্তার আয়োজন।