ad
ad

Breaking News

Malda

ঝুঁকির মেলা! নিরাপত্তা ছাড়াই ব্যবহার হচ্ছে রান্নার গ্যাস, ব্যবস্থা নেওয়ার হুঁশিয়ারি জেলাশাসকের

বিনোদনের মেলা হয়ে উঠেছে ঝুঁকির মেলাতে। কাপড়ের দোকানে গ্যাস জ্বালিয়ে ঝুঁকি নিয়ে চলছে দুপুরের রান্না

Fair risk! Cooking gas is being used without safety, District Magistrate warns of taking action

নিজস্ব ছবি

Bangla Jago Desk,অভিষেক দাস,মালদা: বিনোদনের মেলা হয়ে উঠেছে ঝুঁকির মেলাতে। কাপড়ের দোকানে গ্যাস জ্বালিয়ে ঝুঁকি নিয়ে চলছে দুপুরের রান্না। রাতে মেলায় গ্যাসের উনুনে দেদার তৈরি হচ্ছে ফাস্টফুড। অথচ, মেলায় নাম মাত্র অগ্নিনির্বাপণ যন্ত্র থাকলেও সেগুলিরও মেয়াদ ফুরোনো বছর ঘুরেছে। বৃহস্পতিবার এমনই ছবি দেখা গেল মালদহের ইংরেজবাজার শহরের বাঁধ রোডের এক বিনোদন মেলায়। 

[আরও পড়ুন: Sufal Bangla: গৃহস্থের নাগালে দাম, ‘সুফল বাংলা’য় মিলছে সুফল]

তবে মেলায় ঝুঁকি এড়াতে কড়া বার্তা দেন মালদহের জেলাশাসক নীতিন সিংহানিয়া।শহরের বাঁধ রোডে জেলা ক্রীড়া সংস্থার ময়দান লাগোয়া মাঠে দীর্ঘ বছর ধরে বর্ষার মরসুমে মেলা বসে। সেই মেলায় রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তের ব্যবসায়ীরা তাঁদের পন্যের পসরা সাজিয়ে কেনাবেচা করেন। মেলায় দোকান বসানোর জন্য প্রতি বর্গফুটে ২৬০ টাকা করে দিতে হয়। শুধু তাই নয়, বিদ্যুতেও অনিয়ম রয়েছে মেলায়। বিদ্যুতের জন্য ব্যবসায়ীদের ফ্যানের প্রতি পয়েন্টের জন্য দেড় হাজার এবং আলোর জন্য প্রায় হাজার টাকা দিতে হয়। অথচ, দোকানগুলিতে কোনও মিটার নেই।

বিদ্যুৎ দফতরের দাবি, কোনও মেলায় দোকান বসলে দোকানপিছু দফতরের অনুমতি নিতে হয়। যদিও শহরের বিনোদনের মেলায় কোনও নিয়মই মানেন না কর্তৃপক্ষ বলে অভিযোগ।অভিযোগ এখানেই শেষ নয়। মেলা জুড়ে গ্যাস সিলিন্ডার ব্যবহার করে দেদার রান্না হচ্ছে। অথচ, অগ্নিনির্বাপন যন্ত্র মেয়াদ ফুরিয়েছে। সে যন্ত্র ব্যবহারের প্রশিক্ষনও নেই ব্যবসায়ীদের। জেলাশাসক ব্যবস্থা নেওয়ার হুঁশিয়ারি দেন। তিনি বলেন,“মানুষের প্রাণ নিয়ে কাউকে খেলা করতে দেব না। অনিয়ম হলে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে। বিদ্যুৎ ও দমকল বিভাগকে পরিদর্শনের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।”